বাগানে চেরি টমেটোর চাষপদ্ধতি

চেরি টমেটো চেরি টমেটো এক ধরণের ছোট জাতের টমেটো। এটি দেখতে চেরি ফলের মতো তাই একে চেরি টমেটো বলা হয়। এর নজরকাড়া সাইজ, সাথে আকর্ষণীয় রঙ, গুণাবলি যা সবার কাছে জনপ্রিয় সবজি হিসেবে স্থান পেয়েছে।

ইতিহাস

চেরি টমেটো চাষাবাদ শুরু চলেছে করে মেক্সিকোতে ১৫ শতাব্দীতে। ১৮০০ সালে চিলি ও পেরুতে, ১৮১৫ সালে গ্রীসে, ১৯১৯ সালে আমেরিকাতে এবং পরবর্তীতে ইসরাইলসহ পৃথিবীর অন্যান্য দেশে বিশেষ করে এশিয়ার দেশ কোরিয়া, জাপান ও থাইল্যান্ডে এর চাষাবাদ শুরু হয়। যা ধীরে ধীরে ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করে। বিভিন্ন দেশে এর রং, আকৃতি মিষ্টতা, লতার বৃদ্ধি, মৌসুমী ফলন শংকরায়নের মাধ্যমে পরিবর্তন করা হয়। এর মিষ্টতা ৯-১০% হলেও আমাদের দেশে তা অনেক বেশি। কৃষি মন্ত্রনালয়ের আওতাধীন কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের আওতাভুক্ত সমন্বিত মানসম্পন্ন উদ্যান উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে এর উৎপাদন ও সম্প্রসারনের জন্য ব্যাপক উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। গত ৩/৪ বছর হতে এই প্রকল্পের অধীনে এর চাষাবাদ শুরু করা হয়েছে। যা ইতিমধ্যে দেশে জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

51522716 253850622172063 6505990411004149760 n

ঢাকা শহরে নিজের ছাদবাগানেও করতে পারেন চেরি টমেটো
ছবিঃ মোসাব্বের আহমেদ

ব্যবহার

চেরি টমেটো খাদ্য হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এটি দেখতে এতটা আকর্ষণীয় ও টুকটুকে লাল হয় তাই খাবার ডেকোরেশন হিসেবে ব্যবহার করা হয়। সাধারণত সালাদ, জুস,সস, বিভিন্ন ধরণের রান্নায় ব্যবহৃত হয়। এছাড়া অনেকে সৌন্দর্য চর্চায় ব্যবহার করে থাকেন। চেরি টমেটোর পুষ্টি উপাদানঃ ফাইবার বা তন্তু – ৫% প্রোটিন – ২% কার্বোহাইড্রেট – ১% ক্যালরি – ১% ভিটামিনঃ এ – ১৭% সি – ২১% কে – ১০% মিনারেল বা খনিজ লবণঃ পটাশিয়াম -৭% ম্যাঙ্গানিজ – ৬% ফসফরাস – ৩% কপার – ৩% চেরি টমেটোতে অন্যান্য টমেটোর মতো গুণাবলি থাকে।

চেরি টমেটোর পুষ্টিগুণ

ক) চেরি টমেটো উচ্চপুষ্টিমান সম্পন্ন একটি সবজি। এতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট লাইকোপিন থাকে যা ক্যান্সারের ঝুঁকি হ্রাস করে।

খ) চেরি টমেটো হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, প্রোস্টেট ক্যান্সার প্রতিরোধ করে।

গ) ব্লাড প্রেশার কমায়, স্কিন কেয়ার করে।

ঘ) চেরি টমেটো কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিরোধ করে।

ঙ) গর্ভবতী মহিলাদের জন্যে চেরি টমেটো খুবই উপকারী।

চ) টমেটো সালাদ বা রস করে খেলে ত্বকের মসৃণতা বৃদ্ধি পায়।

ছ) বাচ্চাদের অল্প পরিমাণ টমেটো সালাদ করে খাওয়ালে তারা সবল ও নীরোগ থাকে।

জ) দৈনিক চেরি টমেটো খেলে চেহারার ফ্যাকাশেত্ব কমে। ত্বক মসৃণ ও উজ্জ্বল করে।

ঝ) চেরি টমেটো বিভিন্ন বিপাকীয় কাজে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

ঞ) চেরি টমেটো ওজন হ্রাসে সাহায্য করে।

ট) ত্বকের যত্নের পাশাপাশি এটি চুলকে মজবুত রাখতে সাহায্য করে।

ঠ) দৃষ্টিশক্তি ঠিক রাখে।

ড) চেরি টমেটো দেহের রোগ সংক্রমণ প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে।

ঢ) শরীরের ওজন কমাতে সাহায্য করে।

ণ) মেনোপজ উপসর্গগুলি হ্রাস করে।

51304228 2768758060015208 4086745417474113536 n

দৃষ্টিনন্দন চেরি টমেটো
ছবিঃ মোসাব্বের আহমেদ

আরও পড়ুনঃ চেরি টমেটো দিয়ে তৈরি চারটি স্বাস্থ্যকর রেসিপি

জাত

বিভিন্ন রঙের চেরি টমেটো আছে। লাল, হলুদ, সবুজ, কালো রঙের চেরি টমেটো খুবই জনপ্রিয়। এছাড়াও নতুন জাত “গোল্ডেন অন্নপূর্ণা”ও চাষ করতে পারেন।

চাষের উপযুক্ত সময়

নভেম্বর – ডিসেম্বর বীজ রোপণ করা হয়ে থাকে।

চাষ পদ্ধতি

চেরি টমেটো অনেক ছোট হওয়ার তা বৃদ্ধি পায় খুব তাড়াতাড়ি। এটি ঘরের বারান্দায়, ছাদে খুব সহজে লাগানো সম্ভব। প্রথমে সুস্থ সবল চেরি টমেটোর চারা অথবা বীজ সংগ্রহ করে নিতে হবে।এরপর ছোট টবে কিছু পরিমাণ পটিং মিক্স(কোকোপিট-৫০%, মাটি-২০%, ভার্মিকম্পোস্ট-২০%, পার্লাইট-১০% এর মিশ্রণ) নিয়ে নিতে হবে। এরপর এতে বীজ রোপণ করতে হবে একই দূরত্বে। এর উপর হালকা লেয়ার করে মাটি দিয়ে দিতে হবে। এরপর পানি দিতে হবে। প্রায় ১৫-২০ দিনের মধ্যেই চেরি টমেটো বীজ থেকে চারা উৎপন্ন হবে। ২০ দিন পরে অন্য টবে স্থানান্তর করতে হবে।

51423138 619787538459619 4842285432479678464 n

মোসাব্বের আহমেদের ছাদবাগানে করা চেরি টমেটো

সার প্রয়োগ

এক গ্রাম এনপিকে এক লি.পানিতে মিশিয়ে গাছের পাতার উপর স্প্রে করে দিতে হবে। গাছে সবসময় ইপসম লবণ, ডিমের খোসা দিতে হবে। এছাড়া ACI এর রত্ন সার প্রয়োগ করলেও হবে। গাছের বয়স ১৫ দিন হলে ফ্লোরা দিতে হবে। পুণরায় ফুল ফোটার পর ফ্লোরা দিতে হবে/

আরও পড়ুনঃ টমেটো চাষ ও এর পুষ্টিগুণ

যত্ন-আত্তি

ক) চেরি টমেটোর টবকে এমন জায়গায় রাখতে হবে যাতে সুর্যের আলো পরে ২-৩ ঘন্টা সকালের আর যাতে দুপুরের কড়া রোদ যেন না পড়ে।

খ) খেয়াল রাখতে হবে যেন এতে ছায়া পরে।

গ) চারা গাছের সাথে একটা লাঠি বেধে দিতে হবে।

ফল সংগ্রহ

জানুয়ারি থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত চেরি টমেটো সংগ্রহ করা যায়।

সার্বিক সহায়তায়ঃ মোসাব্বের আহমেদ

Suriya Jaman Barsha
Follow Me

Leave a Reply