জয়ফল বিচিত্রা | Greeniculture

জয়ফল সম্পর্কে আমরা কমবেশি সবাই জানি। মসলা হিসেবে ব্যবহার ছাড়াও এর রয়েছে অনের ওষুধী গুন। আজকাল আমরা সবাইই অনেক সময় ত্বকে ব্যাকটেরিয়াল ইনফেকশনে ভুগি। ত্বকে শুরু হয় নানা ধরনের ব্রণের সমস্যা। এই ব্রণের সমস্যা দূরীকরনে জয়ফলের ভূমিকা অনেক।আজ আমরা এই জয়ফলের ইতিহাস সম্বন্ধে জানব আর জানব স্বাস্হ্য সমস্যায় জয়ফলের ১১ উপকারী ভূমিকা।

জয়ফলের ইতিহাস

জয়ফলের আদি বাসস্থান ইন্দোনেশিয়া। এটি বৃক্ষ জাতীয় চিরচহরিত গাছ। গাছে রসালো খোসাযুক্ত ফল হয়। যার খোসা ছাড়ালে দেখা যায় রক্তবর্ণ পাপড়ির মত আবরণযুক্ত গোলাকার একটি বীজ। এই পাপড়িই হচ্ছে জয়ত্রি যা ভেতরের শক্ত খোসা ভাঙলে যে জয়ফল পাওয়া যায় তার মতই সুগন্ধি। জয়ফলের বোটানিকাল নাম মাইরেস্টিকা ফ্রেগরেন্স (Myristica fragrans)। আর জয়ত্রির ইংরেজি নাম (Nutmeg)।

Nutmeg

বিভিন্ন মশলার সাথে জয়ফল

উপকারিতা

  • প্রাচীন আমল থেকেই রোমান ও গ্রীকরা জয়ফলকে Brain tonic হিসেবে ব্যবহার করে আসছে। কারণ, জয়ফল মস্তিষ্কে প্রভাবিত করে। ফলাফলস্বরুপ এটি অবসাদ ও মানসিক চাপ কমিয়ে দেয়। যদি কেউ বিষন্ন বা উদ্বেগ বোধ করেন তবে তার সমাধানও হল জয়ফল।
  • চীনারা জয়ফলকে ওষুধ হিসেবে ব্যবহার করছে। তারা বিভিন্ন প্রদাহ ও পেটের পীড়া এর চিকিৎসায় এটি ব্যবহার করত। joint pain, muscle pain, arthritis এ জয়ফল তেল ব্যবহার করলে ব্যাথা থেকে রেহাই পাওয়া যায় সহজেই।
  • যদি পরিপাক জনিক সমস্যা যেমন- ডায়রিয়া, কোষ্ঠ্যকাঠিন্য পেট ফাঁপা, ইত্যাদিতে ভুগে থাকেন তবে জয়ফল হল আপনার জন্য কার্যকরী সমাধান।
  • জয়ফল তেল পেট ব্যাথা কমায়, পেট থেকে অতিরিক্ত গ্যাস বের করে দেয়, খাবারে রুচিও বাড়ায়। এতে antibacterial properties আছে যা মুখের দুর্গন্ধ রোধ করতে সক্ষম। এটা মুখের দুর্গন্ধসৃষ্টিকারী ব্যকটেরিয়াকে ধ্বংস করে নিঃশ্বাসকে সজীব রাখে। দাতের ব্যাথা এ মাড়ির বিভিন্ন সমস্যায় ও এটি ব্যবহৃত হয়।
  • তৈলাক্ত ত্বকে একটি ভয়াবহ সমস্যা হল ব্রণ। এই ব্রণ সারাতে জায়ফল গুঁড়া করে এর সাথে মধু মিশিয়ে ৩০ মিনিট মুখে মেখে উষ্ণ গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।কারন জয়ফলে থাকে প্রচুর antioxidant যা ব্রনের চিকিৎসায় সাহায্য করে।
  • যাদের শুস্ক ত্বক তবুও রয়েছে ছোট ছোট জেদি পিম্পল, সেগুলো সারাতে জায়ফল গুঁড়ো করে এর সাথে জাফরান এবং দুধ মিশিয়ে প্যাক বানিয়ে ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন দেখবেন ব্রণ সেরে যাবে।
  • ঘরোয়া উপাদান দিয়ে ফেইস স্ক্রাব বানানোর জন্য জায়ফল গুঁড়ার সাথে কফি ও অলিভ অয়েল মিশিয়ে ব্যাবহার করুন। এটি ত্বকের মরা চামড়া দূর করে ত্বক উজ্জ্বল করার ক্ষেত্রে খুবই কার্যকরী স্ক্রাব।
  • Cystic acne সারানোর জন্য জায়ফল গুঁড়ার সাথে দারুচিনি গুঁড়া এবং টক দই মিশিয়ে মুখে মাখুন দেখবেন ২-৩ দিনের মধ্যে রেজাল্ট পাওয়া শুরু করবেন।
  • ব্রণ ঠেকাতে আরেকটি জাদুকরী উপায় হল, জায়ফল এর সাথে লেবুর রস এবং মধু মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে ১০ মিনিট রাখুন এবং কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি রাতে ঘুমানোর আগে ব্যবহার করুন। কারণ যে কোন হিলিং মেথড এর জন্য রাত সবথেকে ভালো সময়।
  • লবঙ্গ তেল এর সাথে জায়ফল গুঁড়া মিশিয়ে ব্রণ এর উপর ১৫ মিনিট লাগিয়ে রেখে কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এতে ব্রণ এর ফোলা ভাব কমবে। লালচে ভাব দূর হবে এবং আকারে ছোট হয়ে আসবে।
  • ডায়েট, দূষণ, মানসিক চাপ, তামাক ইত্যাদি আমাদের শরীরকে বিষাক্ত করে তোলে। লিভার ও কিডনীতে তে সাধারনত এই বিষ তৈরী হয়। জয়ফল লিভার ও কিডনীকে পরিষ্কার রাখে এবং বিষাক্ত পদার্থ আপসারিত করে। এছাড়াও যাতে ইনসোমনিয়ার সমস্যা রয়েছে তারা রাতে এক গ্লাস দুধের সাথে জয়ফলের গুড়ো মিশিয়ে খেতে পারেন, এটি আপনাকে চাঙ্গা করে ভালো ঘুম আনতে সাহায্য করবে।

Facebook Comments