ঘরোয়া উদ্ভিদের পাতার বাদামী স্পট ঘরের গাছে বাদামী দাগ বাদামি দাগ বাদামি টিপস ইন্ডোর প্ল্যান্টে বাদামী দাগ, ঘরোয়া উদ্ভিদের পাতায় বাদামী স্পট ও এর প্রতিকার, Greeniculture

সম্প্রতি বাড়ির অন্দরের গাছের যত্ন নেওয়ার সময় আমার ঘরের ঝুড়িতে রাখা স্পাইডার প্ল্যান্ট-এ ক্লোরোফাইটাম লক্ষ্য করি। দূর থেকে স্পাইডার প্ল্যান্ট দেখতে দারুন লাগে। এর মাথায় গজানো একগাদা পাতা ঝুড়ির চারপাশ থেকে বেয়ে নামছিল। কিন্তু কাছাকাছি গিয়ে আমি পাতার অগ্রভাগে অনেক বাদামী দাগ বা বাদামী স্পট লক্ষ্য করলাম।

উদ্ভিদের উপর বাদামী দাগ কেন হয়?

বাড়ির বাইরে জন্মানো গাছগুলোকে ঘরে নিয়ে আসলে এই সমস্যা দেখা দেয় বলে অনেকেই মনে করে থাকেন। এর কারণ হিসেবে বলা যেতে পারে বেশি আলোর স্থান থেকে স্বল্প আলোক স্থানে গাছ স্থানান্তরিত হওয়ায় অনেক সময় এই স্ট্রেস দেখা দিতে পারে।

সেচ পদ্ধতি

একজন অভিজ্ঞ বাগানী কোন ঘরোয়া উদ্ভিদে কিরকম পরিমান পানি ব্যবহার করেন এবং নতুন শুরু করা শখের বাগানীরা কি পানি ব্যবহার করেন সেগুলির মধ্যে পার্থক্যগুলি একবার দেখে নিই।

 অভিজ্ঞ কৃষকদের সেচের পানি উৎস

বাংলাদেশের প্রেক্ষিতে বেশিরভাগ অভিজ্ঞ চাষিরা গ্রাম অঞ্চলে ফসল চাষ করে থাকেন।  এছাড়াও এই দলে রয়েছে অভিজ্ঞতাসম্পন্ন নার্সারীর বাগানিরা। এরা প্রাকৃতিক উৎস থেকে সংগ্রহ করা পানি গাছে দিয়ে থাকেন। অনেকে নদী বা অন্যান্য উৎস থেকে কেউবা পাম্পের মাধ্যমে গভীর নলকূপ থেকে পানি তুলে সেচ কার্যক্রম চালান। শহরের বাসাবাড়িতে সাপ্লাই দেওয়া পানির মতো এরা পরিষ্কার হয় না হয়ত, কিন্তু এসব পানিতে বেশ ভাল পরিমানে প্রাকৃতিক মিনারেল থাকে ও ক্লোরিন বর্জিত।

ঘরোয়া উদ্ভিদের পাতার বাদামী স্পট ঘরের গাছে বাদামী দাগ বাদামি দাগ বাদামি টিপস ইন্ডোর প্ল্যান্টে বাদামী দাগ, ঘরোয়া উদ্ভিদের পাতায় বাদামী স্পট ও এর প্রতিকার, Greeniculture

এসব প্রাকৃতিক উৎস থেকে সংগৃহীত পানি দ্বারা উৎপাদিত গাছ ও ফসলের রোগ-বালাই তুলনামূলক কম হয়ে থাকে।

শহুরে বাগানীদের সেচের পানি উৎস

বর্তমানে ঢাকা শহরের বেশিরভাগ ফ্ল্যাট বা দালান মালিক্রা বাড়িতে বৈদ্যুতিক বা ডিজেল পাম্প চালিত কূপ রয়েছে।  বেশিরভাগ বাড়িতে ওয়াসা থেকে সরাসরি পানি কিনে ব্যবহার করে থাকেন। এইসব পানি নদী বা উৎস থেকে নিয়ে ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্টের মাধ্যমে পরিশ্রুত করে বাসাবাড়িতে সাপ্লাই দেওয়া হয়।

আরও পড়ুনঃ বাগানের সুরক্ষায় মাউথওয়াশের কিছু কার্যকরী ভূমিকা

কিছু বছর ধরে ওয়াসা পানি  সরবরাহে ক্লোরিন এবং ফ্লোরাইড যুক্ত করতে শুরু করে। ফ্লোরাইড আমাদের দাঁত-এর জন্য ভাল তবে অনেক ঘরোয়া গাছ এর জন্যে খারাপ।

 .

শহরে সরবরাহকৃত ওয়াসার পানিতে সাধারণত ১ পিপিএম (প্রতি মিলিয়নে) ফ্লোরাইড থাকে, সংবেদনশীল ঘরোয়া গাছগুলির জন্য নিরাপদ হিসাবে বিবেচিত পরিমাণের চেয়ে যা কিনা চারগুণ বেশি।

তাই বলে এই নয় যে আপনি যদি আপনার ঘরোয়া গাছপালায় কলের পানি দিয়ে সেচ দেন তবে তারা শীঘ্রই মারা যাবে।

ঘরোয়া উদ্ভিদের পাতার বাদামী স্পট ঘরের গাছে বাদামী দাগ বাদামি দাগ বাদামি টিপস ইন্ডোর প্ল্যান্টে বাদামী দাগ, ঘরোয়া উদ্ভিদের পাতায় বাদামী স্পট ও এর প্রতিকার, Greeniculture

সময়ের সাথে সাথে বোরন এবং ফ্লোরাইডের মতো কিছু ছোট ছোট রাসায়নিক পদার্থ পাতায় তৈরি হয়। এই কাঠামোটি গাছপালায় পাতায় বিশেষ করে ড্রাসেনিয়া এবং স্পাইডার প্ল্যান্টগুলিতে বাদামি স্পট হয়ে দেখায দেয়। স্পাথাইফিলামস – পিস লিলি জাতের উদ্ভিদগুলি উচ্চ পরিমাণে বোরনের কারণে পাতা বিকৃত বা হলুদ দেখায়।

আর্দ্রতার অভাব

বাদামি স্পট আর্দ্রতার অভাবেরও একটি ইঙ্গিত। অনেকগুলি সাধারণ ঘরোয়া উদ্ভিদ জঙ্গলের অবস্থায় খাপ খেয়ে বড় হওয়া, তাই আপনার ঘরের আর্দ্রতা কম হলে, আপনার গাছগুলিকে প্রতিদিন পানি দিতে হবে। ঘরোয়া উদ্ভিদগুলো একসাথে রাখলে আপনার বাড়ির আর্দ্রতার মাত্রা ধরে রাখতে সহায়তা করে।

আপনার অন্দরের গাছপালায় উপর বাদামী অগ্রভাগের অন্যান্য কারণঃ

  • উদ্ভিদের কীট যেমন মাকড়সা মাইট এবং অন্যান্য কীটপতঙ্গ
  • অনেক বেশি সার প্রয়োগ করা
  • প্রচুর পরিমাণে জলসেচনের ফলে গাছের শিকড়ের পচে যাওয়া
  • পর্যাপ্ত পানি সেচ না দেওয়া
  • রাসায়নিক পদার্থ দ্বারা ক্ষতিগ্রস্থ হওয়া
  • গাছের রোগগুলি যেমন পাউডারি মিলডিউ , ব্যাকটেরিয়াল লিফ স্পট এবং ছত্রাকজনিত রোগ।
  • সরাসরি সূর্যের আলো পড়া
  • বায়ু সঞ্চালনে বাধা পাওয়া
  • পর্যাপ্ত পুষ্টিহীনতা (ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, আয়রন ও ফসফরাসজনিত ঘাটতি)

আপনার গাছগুলিতে ভাল পানি ব্যবহার শুরু করার মাধ্যমে।

আরও পড়ুনঃ ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ ও চর্বি কমাতে তেজপাতা

আপনি কিভাবে ঘরোয়া গাছগুলোতে পানি সেচ দিবেন?

নিজেকে আপনার গাছের জন্য সবচেয়ে ভালভাবে পানি সেচ দেওয়ার সবচেয়ে সহজ উপায় হল ট্যাপ বা কলের পানি দিয়ে একটি পাত্র ভরাট করে রেখে দিন। এর ফলে পানিতে থাকা ক্লোরিন নিচে জমা পড়ে যায়। অনেক লোক পাতিত জল ব্যবহার করে কারণ এতে নলের জলে পাওয়া রাসায়নিক পদার্থ একেবারে থাকে না বললেই চলে।

.

অভিজ্ঞ বাগানীদের অবশ্যই সর্বদা পানি সেচে সতর্ক থাকতে হবে, পাত্রে পানি জমতে দেওয়া যাবে না। অনেক বাগানিদের কাছে এটি কোনও সমস্যা না এবং তবে কারো কারো কাছে এটি রীতিমত এক যুদ্ধ!

.

যদি আপনি আপনার গাছগুলির পাতার অগ্রভাগে বাদামি হওয়া সমস্যার মুখোমুখি হন তবে গাছে পানি দেওয়ার আগের রাতে কিছুটা পানি পাত্রে রেখে দিন।

.

ক্লোরিন এবং ফ্লোরাইড দ্বারা সৃষ্ট বাদামি স্পটগুলির সম্ভাব্য মাথাব্যথা বন্ধ করতে সহায়তা করা আপনার গাছপালা আরও উপভোগ করার জন্য আপনার আরও একটি উপায়।

Facebook Comments